শিশুদের শেখার ও নিজেদের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য ১০০টি স্বাস্থ্য বার্তা হল ৮-১৪ বছর বয়সী বাচ্চাদের উদ্দেশ্যে তৈরী করা সহজ, নির্ভরযোগ্য স্বাস্থ্য শিক্ষা বার্তা। তাই এতে ১০-১৪ বছর বয়সী কিশোরকিশোরী অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আমরা মনে করি যে এটা বিশেষভাবে সহায়ক এবং গুরুত্বপূর্ণ যে ১০-১৪ বছর বয়সী এই সমস্ত ছেলে-মেয়েদের তথ্যগুলো দেওয়া জরুরী কারন এই বয়সের ছেলে-মেয়েরা সাধারণত তাদের পরিবারের ছোটোদের যত্ন নিয়ে থাকে। এছাড়া, তারা যেভাবে নিজেদের পরিবারকে সহায়তা করছে, সেটাকে স্বীকৃতি দেওয়া এবং প্রশংসা করা প্রয়োজন।

স্বাস্থ্য সম্পর্কে ১০টি প্রধান বিষয়ের প্রত্যেকটির জন্য ১০টি করে বার্তা নিয়ে এই ১০০টি বার্তা তৈরি করা হয়েছে। বিষয়গুলি হল: ম্যালেরিয়া, ডায়রিয়া, পুষ্টি, ঠান্ডা কাশি এবং অসুস্থতা, অন্ত্রের কৃমি, পানি ও পরিচ্ছন্নতা, টিকাদান, এইচআইভি ও এইডস এবং দুর্ঘটনা, আঘাত এবং প্রাথমিক শৈশব বিকাশ। এই সহজ স্বাস্থ্য বার্তাগুলি বাবা-মা এবং স্বাস্থ্য-বিষয়ক শিক্ষকেরা বাড়িতে, স্কুলে, ক্লাবে এবং চিকিৎসালয়ে শিশুদের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করতে পারবেন।

এখানে বিষয় ৩-এর উপর ১০টি বার্তা রয়েছে: টিকাদান

  1. প্রতিবছর বিশ্বজুড়ে লক্ষ লক্ষ বাবা-মা নিশ্চিত করে যে তাদের সন্তানরা শক্তিশালী হয়ে ওঠুক এবং টিকা নিয়ে রোগ থেকে সুরক্ষিত থাকুক।
  2. আপনার সংক্রামক রোগে অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণ, আপনার দেহে একটি ক্ষুদ্র, অদৃশ্য জীবাণু প্রবেশ করেছে। এই জীবানু আরও জীবাণু তৈরি করে এবং আপনার শরীরকে ভালোভাবে কাজ করতে বাধা দেয়।
  3. আপনার শরীরে রয়েছে সৈনিকদের-মত বিশেষ রক্ষাকর্মী যাদের বলা হয় অ্যান্টিবডি – যারা জীবাণুর সাথে যুদ্ধ করে। জীবাণু মারা যাবার পর, অ্যান্টিবডি আপনার শরীরে পুনরায় লড়াই করতে প্রস্তুত থাকে।
  4. টিকা আপনার শরীরের মধ্যে (ইনজেকশন দ্বারা বা মুখে) অ্যান্টিজেন প্রবেশ করিয়ে দেয়। তারা আপনার শরীরে সৈনিকদের-মত অ্যান্টিবডি তৈরি করে তাদের রোগ-বালাইয়ের সাথে যুদ্ধ করা শেখায়।
  5. কিছু টিকা আপনাকে একবারের বেশি দেওয়া হয়, যাতে করে রোগ থেকে নিশ্চিত সুরক্ষা প্রদান করতে যথেষ্ট পরিমান এন্টিবডি তৈরী হতে পারে।
  6. ভয়াবহ রোগ যা মৃত্যু ও কষ্টের কারণ হতে পারে – যেমন হাম, যক্ষ্মা, ডিপথেরিয়া, হুপিং কাশি, পোলিও এবং টিটেনাস (এবং আরও!), এমন সব রোগ টিকা দিয়ে প্রতিরোধ করা যেতে পারে।
  7. আপনার শরীরকে রক্ষা করার জন্য রোগের আক্রমণ হওয়ার পূর্বেই টিকা নিয়ে নিতে হবে।
  8. শিশুদের রক্ষা করার জন্য তাৎক্ষণিকভাবে বাচ্চাদের টিকা দেওয়া হয়। কোন শিশু তার সুযোগ হারালে, তাকে পরে টিকা দেয়া যাবে।
  9. শিশুদের বিভিন্ন রোগের জন্যে বিভিন্ন বয়সে টিকা দেয়া হয়। কখন এবং কোথায় আপনার সম্প্রদায় শিশুদের টিকাদান করবে খুঁজে বের করুন।
  10. যদি শিশু বা ছোট শিশুরা টিকাদান দিবসে সামান্য অসুস্থ্য থাকে তবুও তাদের টিকা দেয়া যাবে।

এই স্বাস্থ্য বার্তাগুলি বিশেষজ্ঞ স্বাস্থ্য শিক্ষাবিদ ও চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের দ্বারা পর্যালোচনা করা হয়েছে এবং এগুলো ওআরবি স্বাস্থ্য ওয়েবসাইটেও পাওয়া যায়: http://www.health-orb.org.

শিশুরা যাতে বিষয়টি আরো ভালোভাবে বুঝে এবং সেটি অন্যদের মাঝে প্রচার করতে পারে তার জন্য কিছু হাতে কলমে কাজের কথা উল্লেখ করা হল।

টিকাদান: শিশুরা কি করতে পারে?

  • আমাদের নিজের ভাষায় নিজস্ব শব্দ ব্যবহার করে নিজস্ব টিকাদান বার্তা তৈরি করি!
  • বার্তাগুলি মুখস্থ করি যাতে আমরা কখনো সেগুলি না ভুলতে পারি!
  • বার্তাগুলি অন্যান্য শিশুদের এবং পরিবারের সদস্যদের জানিয়ে দিন!
  • টিকা দিবসের জন্য পোস্টার তৈরি করব এবং সহজে সবাই দেখতে পায় এমন স্থানে প্রদর্শন করব।
  • আমাদের গ্রামে প্রাণঘাতী যে রোগগুলো শিশুদের ক্ষতি করছে তাদের নিয়ে নাটক লিখবো।
  • তৈরী করবো টিকাদানের সুপারহিরোর ছবি সহ গল্প যে প্রানঘাতী রোগের সাথে যুদ্ধ করে আমাদের সুরক্ষা করে।
  • এক বা একাধিক রোগের পোস্টার তৈরি করুন যা টিকার দ্বারা প্রতিরোধ করা যায় ডিপথেরিয়া, হাম এবং রুবেলা, খুংড়ি কাশি, যক্ষ্মা, টিটেনাস ও পোলিও
  • একটি খেলা বা গল্প তৈরী করুন এন্টিবডিনিয়ে, যা এক ধরনের শক্তিশালী সুরক্ষক এবং আমাদের নিরাপদ ও ভাল রাখে।
  • আমরা প্রতিটি রোগ সম্পর্কে শিখি এবং তা জানাই অন্য শিশুদের এবং আমাদের পরিবারকে
  • একটি বিশেষ জন্মদিনের কার্ড তৈরী করি একটি নতুন শিশু এবং তাদের মায়ের জন্য যেখানে টিকাদানের সময়সূচী লেখা থাকবে আর তাদের জীবনে একটি সুখী এবং স্বাস্থ্যকর প্রথম বছরের শুভেচ্ছা জানাই!
  • টিকাদান আর কি কি রোগ থেকে আমাদের সুরক্ষিত রাখে তা খুঁজে বের করি।
  • প্রতিবন্ধী শিশুদের কিভাবে সাহায্য করা যায় তা আরও জানি।
  • টিকা সম্পর্কে আমরা কতটুকু জানি তা যাচাই করতে একটি কুইজ তৈরি করুন ও খেলুন। এটি বন্ধুদের এবং পরিবারের সদস্যদের সাথে ভাগ করুন।
  • খুঁজে বের করুন কোন টিকা আমাদের একবারের বেশি নেয়া প্রয়োজন। এবং যেসকল শিশুর টিকা ছুটে গেছে তাদের খুঁজে বের করুন।
  • খুঁজে বের করুন রোগ গুলোর আসল শক্তি কি এবং টিকা কিভাবে সেই শক্তিকে হারিয়ে দেয়।
  • যাচাই করি আমাদের শ্রেণীর সকল শিক্ষার্থী এবং আমাদের সকল শিক্ষকের সবগুলো টিকা নেয়া হয়ে গেছে কিনা।
  • খোঁজ রাখুন কোন বিশেষ টিকাদান আয়োজন হবে কিনা অথবা টিকাদান দিবস এবং স্বাস্থ্য সপ্তাহ উদযাপন হবে কিনা যেখান সকল শিশু ও ছোট শিশুর টিকা দেয়া যেতে পারে।
  • আমার পরিবারের কারো টিকা ছুটে গেলে তা খুঁজে বের করতে হবে যেনো তারা সেটি পূরন করে নিতে পারে।
  • জিজ্ঞেস করবো আমাদের দেশে কখন টিকা দেয়া হয় এবং আমরা কবে টিকা নিতে পারব।
  • আমাদের পরিবারের কেউ যদি ওইসকল কোন প্রাণঘাতী রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে এবং পরে তাদের কি হয়েছিল তা জানতে হবে।

বিস্তারিত তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন www.childrenforhealth.org অথবা clare@childrenforhealth.org.

বাংলা Home